ইউরো ফুটবলের মাঠেও চীনা বিজ্ঞাপনের দাপট

বিশ্বজুড়ে ফুটবলপ্রেমীদের চোখ এখন ইউরো ২০২০ টুর্নামেন্টে আটকে আছে। খেলোয়াড়দের ক্রীড়া নৈপুণ্যের পাশাপাশি ফুটবল মাঠে ডিজিটাল বিলবোর্ডে চীনা সুপার ব্র্যান্ডের প্রদর্শনীও কারও চোখ এড়ায়নি। যেখানে ২০১৬ সালের ইউরো টুর্নামেন্টে মাত্র একটি চীনা প্রতিষ্ঠান ‘হাইসেন্স’ স্পনসর করেছিল, সেখানে চলতি মৌসুমে প্রতিষ্ঠানটির বিজ্ঞাপনের পাশাপাশি বিলবোর্ড দখল করেছে টিকটক, ভিভো ও আলি পে-এর মতো অন্যান্য চীনা প্রযুক্তিপ্রতিষ্ঠান। খবর বিবিসির।

ইউরো ফুটবলের চলতি আসরে মাঠের বিজ্ঞাপনে চীনের অফিশিয়াল পার্টনারের তালিকায় ফেসবুক, গুগল, আমাজন বা অ্যাপলের মতো যুক্তরাষ্ট্রের নামীদামি প্রতিষ্ঠানের নাম পর্যন্ত দেখা যায়নি। অবশ্য টুর্নামেন্ট আয়োজক ইউরোপিয়ান ফুটবল সংস্থা (উয়েফা) বিবিসিকে জানায়, চীনা ব্র্যান্ডের বিজ্ঞাপনের আধিপত্যের সুনির্দিষ্ট কোনো কারণ নেই। তারা দর্শকদের পাশাপাশি বৈশ্বিক বাণিজ্যিক ব্র্যান্ডগুলোকে সম্পৃক্ত করার চেষ্টা করছে।বিজ্ঞাপন

চীনের ভিডিও প্ল্যাটফর্ম টিকটক দাবি করেছে, তাদের বৈশ্বিক কার্যক্রম চীনের অভ্যন্তরীণ কার্যক্রম থেকে আলাদা। তাদের প্ল্যাটফর্মের প্রচারণা বাড়াতেই তারা উয়েফার এই টুর্নামেন্টে স্পনসর করছে। এদিকে টুর্নামেন্ট উপলক্ষে উয়েফা টিকটকের তাদের একটি অফিশিয়াল অ্যাকাউন্ট চালু করেছে, যেখানে প্রায় ৪.২ মিলিয়ন (৪২ লাখ) ফলোয়ার রয়েছে।

অনলাইন পেমেন্ট প্ল্যাটফর্ম ‘আলি পে’, ‘অ্যান্ট চেইন’ও টুর্নামেন্টে স্পনসর করছে। এগুলে চীনা টেক জায়ান্ট ‘অ্যান্ট’ গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান। গত মাসে উয়েফার সঙ্গে পাঁচ বছরের একটি স্পনসরশিপ চুক্তি সই করে অ্যান্ট চেইন। অপর দিকে আলি পে উয়েফার সঙ্গে আগেই আট বছরের একটি চুক্তি সই করেছে। চলতি ইউরো টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড়ের ট্রফিও স্পনসর করছে আলি পে।

চলতি ইউরো আসরে অ্যান্ট চেইনের হ্যাশট্যাগ ব্যবহারের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছে উয়েফা। যুক্তরাজ্যের বার্মিংহাম ইউনিভার্সিটির স্পোর্ট পলিসি অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট বিভাগের লেকচারার শু শু চার্ন বলেন, ২০১৬ সালের ইউরো টুর্নামেন্টে স্পনসর করার পর হাইসেন্সের বিক্রি অনেক বেড়ে যায়।বিজ্ঞাপন

চীনের ভিডিও প্ল্যাটফর্ম ‘টিকটক’ তাদের প্রচারণা বাড়াতে এই টুর্নামেন্টে স্পনসর করেছে।
চীনের ভিডিও প্ল্যাটফর্ম ‘টিকটক’ তাদের প্রচারণা বাড়াতে এই টুর্নামেন্টে স্পনসর করেছে। 

চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং ফুটবলের দারুণ ভক্ত বলে জানা গেছে। হয়তো এ কারণেই তিনি সরকারের সঙ্গে দেশটির প্রযুক্তিপ্রতিষ্ঠানগুলোর সম্পর্ক আরও জোরদার করতে চান। তাঁর এমন দৃষ্টিভঙ্গিকে একধরনের বিচক্ষণ জনসংযোগ বলে মনে করা হচ্ছে।

বিজ্ঞাপনী সংস্থা অমিডার জ্যেষ্ঠ বিজ্ঞাপন বিশ্লেষক ম্যাট বেইলি বলেন, দেশীয় বাজারে তাঁরা চাপ অনুভব করছেন। ২০২০ সাল থেকে টিকটকের বিস্তারের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ধীরে ধীরে চীনা প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য ইউরোপের বাজার গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠছে।

প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং ২০১৪ সালে তাঁর দেশের স্কুলের পাঠ্যক্রমে খেলাধুলা অন্তর্ভুক্ত করেন। এর দুই বছর পর চায়নিজ সুপার লিগ (সিএসএল) আয়োজন করা হয়। টুর্নামেন্টে দর্শক আকৃষ্ট করতে আন্তর্জাতিক অনেক তারকা খেলোয়াড়ের সঙ্গে সেই সময় করা হয় মোটা অঙ্কের চুক্তি। তাঁদের অন্যতম চেলসির ব্রাজিলিয়ান তারকা অস্কার। প্রায় ৬০ মিলিয়ন ডলারে চুক্তিবদ্ধ হয়ে বর্তমানে সাংহাইয়ের একটি ক্লাবে খেলছেন তিনি।

ইউরোতে চীনা বিজ্ঞাপনের দাপট দেখে অনেকেই অবাক হয়েছেন, বিশেষ করে চীনা ভাষায় লেখা দেখে।
ইউরোতে চীনা বিজ্ঞাপনের দাপট দেখে অনেকেই অবাক হয়েছেন, বিশেষ করে চীনা ভাষায় লেখা দেখে। 

চীনের ফুটবল দর্শকদের চোখও এখন পশ্চিমা দেশগুলোর দিকে। ইংল্যান্ডের আর্সেনাল ফুটবল ক্লাবের অন্তত ২০০ মিলিয়ন (২০ কোটি) চীনা সমর্থক রয়েছে বলে জানা যায়। এ সংখ্যা যুক্তরাজ্যের জনসংখ্যার প্রায় তিন গুণ। এসব দর্শক নিয়মিত ইউরোপের ফুটবল ম্যাচ দেখেন জানিয়ে বিবিসির গণমাধ্যম বিশ্লেষক কেরি অ্যালেন বলেন, চায়নিজ মাইক্রোব্লগিং সাইট উইবোতে প্রতিদিন ইউরো–সংক্রান্ত অন্তত পাঁচ মিলিয়ন হ্যাশট্যাগ ব্যবহার হয়।

ওয়েলসের আরেক বিপণন বিশেষজ্ঞ জো কান্ট স্টোনার বলেন, এটা পুরোপুরি ব্র্যান্ড–সচেতনতা। টেলিভিশনের বিজ্ঞাপনেও চীনা প্রতিষ্ঠানের আধিপত্যের বিষয়টি স্বীকার করেন তিনি। তিনি বলেন, অনলাইন বিজ্ঞাপনের বাজার ও সময় কাটানো দুটিই বেড়ে গেছে।

বিজ্ঞাপনী ব্যক্তিত্ব সিনডি গ্যালপ জানান, ‘প্রতিটি দেশে এশীয়দের বিরুদ্ধে ঘৃণা ছড়ানো বন্ধ করা উচিত। আমি মনে করি, চীনা ব্র্যান্ডগুলোর জন্য এটা (ইউরো টুর্নামেন্ট) এক বড় সুযোগ। আন্তর্জাতিক ফুটবলে তাদের অংশগ্রহণ বাড়ছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমি নিজেও ইউরোতে চীনা বিজ্ঞাপন দেখে অবাক হয়েছি। বিশেষ করে চীনা ভাষায় লেখা দেখে। এটি আসলেই অনেক কিছু ইঙ্গিত করে।’

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *