করোনার প্রকোপ কমাতে নরবলি! মুণ্ডু কেটে দেওয়া হলো পূজা!

সারা বিশ্বে মারণ থাবা বসিয়েছে করোনাভাইরাস। ভ্যাকসিন বা কোনো টিকা উদ্ভাবন হয়নি। তবুও বিজ্ঞানের দিকেই তাকিয়ে গোটা পৃথিবীর মানুষ। কিন্তু এই পরিস্থিতিতেও অনেকে আবার কুসংস্কারের দিকেও ঝুঁকছে। সম্প্রতি ভারতের ওড়িশার ঘটনা ফের সেকথাই প্রমাণ করল।

ভারতের স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় এক যুবককে নরবলি দিয়ে তার মুণ্ডু কেটে পূজা দিল মন্দিরের পুরোহিত। মৃত ওই যুবকের নাম সরোজ কুমার প্রধান। মন্দিরের মধ্যেই ওই যুবককে বলি দেওয়া হয়। তারপর মুণ্ডুটি রেখে পূজা করা হয়। পুরোহিতের বক্তব্য, স্বপ্নে সে দেখেছে বলি দিলেই ভগবান তুষ্ট হবে। করোনা মহামারিও থেমে যাবে।

বুধবার মধ্যরাতে এই ঘটনাটি ঘটে ওড়িশার কটকের নরসিংহপুর থানা এলাকায়। অভিযুক্ত পুরোহিতের নাম সনসারি ওঝা। বয়স ৭২। এক মন্দিরে পুরোহিত। নরবলি দিয়ে পূজা শেষ করেই নিজেই পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করে। পরে জেরায় অভিযুক্ত পুরোহিত পুলিশকে জানিয়েছে, নরবলির আগে তার সঙ্গে বছর সরোজের সঙ্গে বচসা হয়। এরপরই একটি কুড়াল দিয়ে যুবকের মাথা আলাদা করে দিয়েছিল ওই পুরোহিত। কুড়ালটিও উদ্ধার করেছে পুলিশ। সরোজের দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। 

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, ওই যুবকের সঙ্গে দীর্ঘ দিন ধরেই বচসা ছিল পুরোহিতের। এই প্রসঙ্গে এক পুলিশ কর্মকর্তা  জানান, ওই পুরোহিত‌ বলি দেওয়ার সময় মদ্যপ অবস্থায় ছিল। সকালে জ্ঞান ফেরার পরই আত্মসমর্পণ করে।

তথ্যসূত্রঃ কালের কণ্ঠ

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *