কিভাবে জীবনের গুরুত্বপূর্ণ কার্যকরী লক্ষ্যগুলো তৈরি করবেন?

দৈনন্দিন জীবনে আমরা প্রতিটা কাজ করার পূর্বে লক্ষ্য স্থির করি। কিন্তু সে লক্ষ্য গুলোর কতটা কার্যকর হবে তা নিয়ে আমরা তেমন ভাবি না বললে চলে। আর নতুন বছরে আমরা উপলক্ষ্যে আমরা অনেক লক্ষ্য স্থির করে ফেলেছি। চলুন নতুন বছরে কিভাবে কার্যকরী লক্ষ্য স্থির করবেন তা নিয়ে আমাদের পাঠক ‘হৃদয় খান’র দেওয়া নিয়মগুলো দেখে আসি…

১) সবার প্রথমে একটা পেপার আর একটি কলম নিয়ে বসুন। তারপর নির্দিষ্ট করুন ২০২০ সালে আপনি কি কি অর্জন করতে চান। এটা বলা যথেষ্ট নয় যে আমি অনেক টাকার মালিক হতে চাই। আপনাকে নির্দিষ্ট করতে হবে ঠিক কতো টাকার মালিক হতে চান। বিলিয়ন ডলার টাকা মালিক হতে চান অথবা ১০ হাজার টাকা?? যে পরিমাণ অর্থ আপনি চান তা সুনির্দিষ্ট ভাবে লিখুন। অথবা কি কি স্কিল আয়ত্ত করতে চান তা সুন্দরভাবে লিখুন।

২) উপরে পয়েন্ট টি আশা করি কাগজে লিখেছেন। এবার আপনাকে নির্দিষ্ট করতে হবে আপনি কত বছরের ভিতর এগুলো অর্জন করবেন। এটা বলা যথেষ্ট নয় যে আমি ৫ বছর ভিতর টাকা, গাড়ি, বাড়ির মালিক হতে চাই।
আপনাকে লিখতে হবে আমি ২০২৫ সালে একটি বাড়ি করবো। ২০২৬ সালে আমার নিজের গাড়ি থাকবে। প্লানিং করার সময় কখনো কিনতে চাই, করতে চাই এগুলো লিখবেন না। সবসময় কিনবো, করবো, পারবো এ শব্দ গুলো আপনাকে লিখতে হবে। সেটার কারণ নিচে বলবো।

৩) ১ম & ২য় পয়েন্ট লিখার পর আপনাকে চিন্তা করতে হবে আপনি যে লক্ষ্য গুলো বাস্তবায়ন করতে চাচ্ছেন তার জন্য আপনাকে কি কি করতে হবে?
প্রতিদিন কতটুকু সময় পরিশ্রম করতে হবে। লক্ষ্য পূরণ করার জন্য কি কি বিষয় ত্যাগ করতে আপনি রাজি আছেন? ইত্যাদি বিষয় গুলো আপনাকে নির্দিষ্ট করতে হবে। কষ্ট এবং পরিশ্রম না করলে আপনার লক্ষ্য কখনো অর্জন হবেনা। এটা মেনে নিতে হবে। বেশিরভাগ লোক এই জায়গায় এসে তাদের লক্ষ্যগুলো অর্জন করতে পারেনা।

৪) এইখানে আপনাকে লিখতে হবে কেন আপনি আপনার লক্ষ্যগুলো গুলো অর্জন করতে চান তা সুনির্দিষ্ট ভাবে লিখুন। ছোট উদাহরণ দিইঃ
“আমি সুখি হতে চাই। সুখি হওয়ার জন্য আমার আর্থিক স্বাধীনতা প্রয়োজন। আমার আর্থিক স্বাধীনতা জন্য আমাকে আমার লক্ষ্যগুলো অর্জন করতে হবে। যত কষ্টই হোক আমি আমার লক্ষ গুলো অর্জন করবো। এভাবে নিজের মতো করে কিছু অনুপ্রেরণামূলক বিবৃতি লিখবেন।”

৫) আপনার লেখাগুলো প্রতিদিন রাতে ঘুমাবার আগে এবং ঘুম থেকে উঠে পড়ুন। এ সময় আমাদের অবচেতন মন সবচেয়ে বেশি সক্রিয় থাকে। যখন আপনি এগুলো বিশ্বাস করে পড়বেন লক্ষ্য গুলো অর্জনের জন্য আপনার অবচেতন মন থেকে অনেক সংকেত পাবেন লক্ষ্যগুলো অর্জন করার জন্য এবং আপনার চিন্তাভাবনা গুলো লক্ষ্য কেন্দ্রিক হয়ে যাবে।

এ ৫ টি বিষয় এন্ড্রু কার্নেগি তার জীবন থেকে নেপোলিয়ন হিল সাথে শেয়ার করেন তার বই ‘Think and Grow Rich’ লিখার সময়। যে বই টি আজো সারাবিশ্বের ১ নাম্বার প্রকৃত তথ্য ভিত্তিক সাহিত্য।
এন্ড্রু কার্নেগির উপরের ৫ টি কৌশল বিজ্ঞানী টমাস আলভা এডিসন বিশেষ ভাবে পরীক্ষা করেন এবং তিনি এগুলোকে স্বীকৃতি দেন।
এইছাড়া Think And Grow Rich, Rich Dad poor dad, The 7 Strategy of Wealth and happiness, The science of getting rich, The secret, Millionaire success habit বইগুলো পড়ার সময় আমি লক্ষ করেছি এ ৫ টি স্ট্রাটেজি।

পোস্ট টি শেয়ার করুন। যদি আপনি টমাস আলভা এডিসন, এন্ড্রু কার্নেগি থেকে বেশি বুদ্ধিমান না হোন তাহলে তাদের দেওয়া পরামর্শ গুলো মেনে চলুন।

লেখকঃ হৃদয় খান
ফেনী ন্যাশনাল কলেজ,
Co founder of smartwaybd.com

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *