কী হয়েছে পরীমনির?

পরীমনি এখন ১৮ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা। মা হবেন, চিকিৎসকের কাছে এমন খবর নিশ্চিত হওয়ার পর থেকে নিয়মের মধ্যে জীবন যাপন করে আসছেন তিনি। টুকটাক কাজ বাকি ছিল, এমন বেশ কয়েকটি ছবির শুটিংও শেষ করে দিয়েছেন। নতুন কোনো ছবি হাতে নেননি। চলাফেরাও সীমিত। কাজ না থাকলে বাসা থেকে বের হন না খুব একটা। অনেকটা চিকিৎসকের পরামর্শেই চলছিলেন এই অভিনেত্রী।
কিন্তু হঠাৎ রোববার সকালের দিকে শারীরিকভাবে কিছুটা অসুস্থ হয়ে পড়েন অভিনেত্রী। মাথা ঘুরে পড়ে যান। সঙ্গে সঙ্গে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে নেওয়া হয় তাঁকে।

পরীমনি
পরীমনি

সেখানেই ভর্তি আছেন বলে জানাগেছে পরীমনির পারিবারিক ঘনিষ্ঠদের সূত্রে। তাঁরা জানান পরীমনির রক্তে হিমোগ্লোবিন কমে যাওয়া ও রক্তচাপ কমে যাওয়ার কারণেই এমনটি হয়েছে। গতকাল থেকে কয়েক ব্যাগ রক্ত দেওয়া হয়েছে তাঁকে। মাঝেমধ্যে স্যালাইনও চলছে।
পরীমনির সঙ্গে আছেন তাঁর স্বামী অভিনেতা শরীফুল রাজ ও ঘনিষ্ঠ পরিচালক চয়নিকা চৌধুরী। সোমবার বিকেলে চয়নিকার সঙ্গে যখন কথা হয় তখন তিনি হাসপাতালে পরীর পাশেই ছিলেন।

চয়নিকা চৌধুরী
চয়নিকা চৌধুরী 

প্রথম আলোকে চয়নিকা বলেন, ‘রক্তে হিমোগ্লোবিন ও প্রেশার—দুটোই এখনো পুরোপুরি স্বাভাবিক হয়নি। তবে আগের চেয়ে একটু ভালো পরীমনি। মেডিসিন ও গাইনি দুই বিভাগের চিকিৎসকই দেখছেন তাঁকে।’ ঘনিষ্ঠজন ছাড়া হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে কারও সঙ্গে খুব একটা কথা বলছেন না পরীমনি।

পরীমনি
পরীমনি

প্রথম আলোকে পরীমনি বলেন, ‘আগের চেয়ে এখন একটু ভালো। চিকিৎসকেরা পরামর্শ দিয়েছেন, দ্রুতই সুস্থ হয়ে উঠতে ঠিকঠাক খাওয়াদাওয়া করতে হবে। ক্ষুধা লাগছে, খেতেও মন চাইছে, কিন্তু খেতে গেলে খুব একটা পারছি না। এটাই সমস্যা।’ বাচ্চা সুস্থ আছে, জানালেন চয়নিকা চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘কয়েকবার আলট্রাসাউন্ড করা হয়েছে। রিপোর্ট ভালো। কোনো সমস্যা নেই। সুস্থ আছে বাচ্চা।’

তথ্য সূত্রঃ প্রথম আলো

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published.