চীন আর বাংলাদেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক নিয়ে ভারতের মাথাব্যাথা!

চীন আর বাংলাদেশের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। এই দুই দেশের মধ্যে বর্তমানে ব্যবসায়িক সম্পর্কের পাশাপাশি গভীর কূটনৈতিক বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ও রয়েছে। সম্প্রতি বাংলাদেশের জন্য বিশেষ সুবিধার কথা ঘোষণা করেছে চীন। তাতে বাংলাদেশ থেকে রফতানি হওয়া অতিরিক্ত ৫১৬১টি পণ্যে শুল্ক না-নেওয়ার কথা বলা হয়েছে। এর ফলে বাংলাদেশ থেকে চীনে রফতানি হওয়া পণ্যের ৯৭ শতাংশকেই শুল্কমুক্তির সুবিধা দিল বেইজিং। জুলাইয়ের প্রথম দিন থেকে নতুন সিদ্ধান্তটি কার্যকর হচ্ছে।

কিন্তু এইদিকে সাম্প্রতিক সময়ে ভারতের সাথে চীনের সীমান্তে আবার ও বিরোধ দেখা দিয়েছে এবং উভয় দেশ সীমান্তে সংঘাতে জড়িয়ে পড়েছে। এতে করে দুই দেশের অনেক সৈন্য নিহত হয়েছে বলে ও জানা গেছে। কিন্তু এই সংঘাত ভারত আর চীনের মধ্যেকার হলে ও বাংলাদেশকে চীনের বিশেষ ব্যবসায়িক সুবিধা দেওয়ার পর থেকে ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যম এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে এবং এই সুবিধাকে খয়রাতি হিসেবে উল্লেখ করে তারা গণমাধ্যমে এই খয়রাতের টাকার মাধ্যমে বাংলাদেশকে চীন পাশে পেতে চায় বলে উল্লেখ করেছে।

এইদিকে ভারতীয় বিভিন্ন গণমাধ্যমের এমন আজগুবি মন্তব্যে বাংলাদেশের জনগণ বিরূপ প্রতিক্রিয়া প্রদান করেছে। তারা বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এরূপ আজগুবি মন্তব্যের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে। অনেকে তাদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ওয়ালে লিখেছে, “মুক্তিযুদ্ধ্বের পর থেকে ভারত বাংলাদেশ থেকে বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা পেয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশ এবং ভারতের মধ্যে দীর্ঘদিনের একটা সুদৃঢ় বন্ধুত্বের সম্পর্ক রয়েছে এবং এই দুই দেশের মধ্যে আন্তঃবাণিজ্য সম্পর্ক রয়েছে । কিন্তু ইদানিং বাংলাদেশ অন্য কোন দেশের সাথে নতুন করে ব্যবসায়িক কিংবা কূটনৈতিক সম্পর্ক বৃদ্ধি করতে গেলে তা ভারত ভালোভাবে নিতে পারছে না। তারই একটা বড় উদাহরণ চীন ও বাংলাদেশের নতুন শুল্কমুক্ত বাণিজ্য।” বাংলাদেশের জনগণ একটা বন্ধুত্বপূর্ণ দেশ থেকে এমন মন্তব্য কখনো আশা করে না বলে ও জানিয়েছে এবং ভারতের গণমাধ্যমকে তাদের লিখনীর মাধ্যমে বিষেদাগার এবং অন্যের ভালো থাকা নিয়ে মাথা না ঘামানোর অনুরোধ জানিয়েছে।

কামরুল হাসান সাকিব,
প্রধান প্রতিবেদক, সময়ের কথন।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *