প্রথমবারের মত বিশ্বকাপ ফাইনালের মঞ্চে বাংলাদেশ!

আজ বাংলাদেশ ক্রিকেট ইতিহাসের জন্য এক ঐতিহাসিক দিন। কারণ আজ দেশের ক্রিকেটে প্রথমবারের মত কোনো বিশ্বকাপ মঞ্চের ফাইনালে উঠল বাংলাদেশ। সাকিব-তামিম-মুশফিকেরা পারেননি। ঘরের মাঠে ফেবারিট তকমা গায়ে লাগিয়েও সেটা করে দেখানো হয়নি মেহেদী হাসান মিরাজ-সাইফউদ্দিনদের। দক্ষিণ আফ্রিকায় অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে তাই ফেবারিটের ছোট তালিকায় বাংলাদেশ ছিল না। কিন্তু মাহমুদুল-তৌহিদ-শরিফুলদের দল সব হিসাব বদলে দিয়ে চলে গেল ৯ ফেব্রুয়ারির ফাইনালে। সেখানে বাংলাদেশের জন্য অপেক্ষা করছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত।

এদিন পচেফস্ট্রুমে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে নিউজিল্যান্ডের দেয়া ২১২ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৪৪.১ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ। জয় ব্যক্তিগত ১০০ রানে আউট হন। তৌহিদ হৃদয় করেন ৪০ রান। ৪০ করে অপরাজিত থাকেন শাহাদাৎ হোসেন।   

বাংলাদেশ ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতে ধাক্কা খায়। দলীয় ২৩ রানে ওপেনার তানজিদ ফিরে যান। এরপর দলীয় ৩২ অপর ওপেনার ইমন উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ হয়ে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন। এরপর জয় ও হৃদয় দলের হাল ধরেন। ৬৮ রানের পার্টনারশিপ গড়েন তারা। দলীয় ১০০ রানে স্ট্যাম্পিং হয়ে ফেরেন হৃদয়। তারপর জয় ও শাহাদাৎ ১০১ রানের জুটি গড়েন। ৪৩তম ওভারের পঞ্চম বলে চার মেরে ব্যক্তিগত সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন জয়। কিন্তু পরের বলেই বোলারের হাতে ক্যাচ হয়ে ফিরে যান তিনি। পরে শাহাদাৎ ও শামীম মিলে দলের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২১১ রান তোলে কিউইরা। ফিল্ডিংয়ে নেমেই কিউইদের চেপে ধরেছিল টাইগার যুবারা। দলীয় ৫ রানেই শামিম হাসানের বলে ক্যাচ তুলে দেন রেইস মারিউ (১)। এরপর রকিবুল হাসানের শিকার ওজে হোয়াইট (১৮)। ফার্গুস লেমান ২৪ রান করে শামিমের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হলে ৫৯ রানে ৩ উইকেট হারায় কিউইরা। অধিনায়ক জেসি টাসকফকে (১০) ফেরত পাঠান হাসান মুরাদ।

এরপর পঞ্চম উইকেটে প্রতিরোধ গড়েন নিকোলাস লিডস্টোন (৪৪) এবং বি হুইলার ৬৭ রানের জুটি গড়ে বিপদ সামাল দেন। নিকোলাসকে ফিরিয়ে এই জুটি ভাঙেন শরিফুল। হুইলার হাফ সেঞ্চুরি করলেও উইকেটকিপার সানডি ফিরেন মাত্র ১ রান করে। ১৪২ রানে ৬ উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড। শরিফুলের দ্বিতীয় শিকার ক্লার্ক (৭)। এই পেসারের তৃতীয় শিকার জো ফিল্ড (১২)। ৮৩ বলে ৭৫ রানের অপরজিত ইনিংস খেলেন হুইলার। ৩ উইকেট নিয়েছেন বাংলাদেশের শরিফুল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ফল: ৬ উইকেটে জয়ী বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল।

নিউজিল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ ইনিংস: ২১১/৮ (৫০ ওভার)

(মারিউ ১, হোয়াইট ১৮, লেলম্যান ২৪, লিডস্টোন ৪৪, তাশকফ ১০, গ্রিনাল ৭৫*, সুন্দে ১, ক্লার্ক ৭, ফিল্ড ১২, অশক ৫*; শরিফুল ৩/৪৫, শামীম ২/৩১, রাকিবুল ১/৩৫, তানজিম ০/৪৪, মুরাদ ২/৩৪, হৃদয় ০/১৮)।

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯: ২১৫/৪ (৪৪.১ ওভার)

(ইমন ১৪, তানজিদ ৩, জয় ১০০, হৃদয় ৪০, শাহাদাৎ ৪০*, শামীম ৫*; ফিল্ড ০/২৮, ক্লার্ক ১/৩৭, হ্যানকক ১/৩১, অশক ১/৪৪, তাশকফ ১/৫৭, গ্রিনাল ০/১৩)।

ম্যাচ সেরা: মাহমুদুল হাসান জয় (বাংলাদেশ)।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *