করোনায় মৃত্যু বাড়ছে ইন্দোনেশিয়ায়

করোনাভাইরাস মহামারি শুরুর পরে প্রথমবারের মতো ইন্দোনেশিয়ায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত মঙ্গলবার এক দিনে দুই হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। বিপুলসংখ্যক জনগোষ্ঠী গণটিকাদানের বাইরে থাকায় ইতিমধ্যে করোনার ডেলটা ধরন দেশটিকে কাবু করে ফেলেছে।

ইন্দোনেশিয়া বিশ্বের চতুর্থ জনবহুল দেশ, জুলাই মাসের শুরু থেকেই দেশটিতে নজিরবিহীনভাবে করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। ভেন্টিলেশন–সংকট, অপর্যাপ্ত স্বাস্থ্যসেবা, শয্যাসংকটের মধ্যেই দেশটি করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করে যাচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপ ও এশিয়ার অন্য দেশের মতো ইন্দোনেশিয়ায় ডেলটা ধরনের সংক্রমণ বাড়ছে। কিন্তু উন্নত দেশের মতো সব মানুষকে টিকার আওতায় আনতে ব্যর্থ হয়েছে দেশটি। এখন পর্যন্ত দেশটিতে মোট ৭ শতাংশ জনগণকে টিকার আওতায় আনা হয়েছে। খবর ওয়ার্ল্ড স্ট্রিট জার্নালের।

ওয়ার্ল্ডোমিটার্সের তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে এক দিনে ৪৭ হাজার ৭৯১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। বুধবার দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৮২৪ জনের।

অন্যদিকে বুধবার পর্যন্ত বিশ্বে মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৯ কোটি ৬১ লাখ ৫২ হাজার ৪৬৯ জনের। আর মৃত্যু হয়েছে ৪১ লাখ ৯৬ হাজার ৫৯০ জনের। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে সুস্থ হয়েছেন ১৭ কোটি ৭৮ লাখ ৩ হাজার ২২ জন।

সর্বশেষ তথ্যে এখন পর্যন্ত বিশ্বে সর্বোচ্চ রোগী শনাক্ত ও মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে মোট ৩৫ কোটি ৩৫ লাখ ৩ হাজার ৯২৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ২৭ হাজার ৩৫১ জনের। দেশটিতে মোট সুস্থ হয়েছেন ২৯ কোটি ৫৭ লাখ ১ হাজার ৪৩৪ জন।

করোনায় মৃত্যুর তালিকায় বিশ্বে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিলে ৫ লাখ ৫১ হাজার ৯০৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। সর্বমোট শনাক্তের দিক দিয়ে তৃতীয় স্থানে থাকা দেশটিতে ১৯ কোটি ৭৪ লাখ ৯ হাজার ৭৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

তবে রোগী শনাক্ত ও মৃত্যুর দিক দিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ভারত। দেশটিতে ৩১ কোটি ৪৮ লাখ ৪ হাজার ৬০৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। একই সময়ে দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৪২ লাখ ২ হাজার ৫৪ জনের।

source- prothom alo

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!