হিযবুত তাহ্‌রীরের সদস্য সন্দেহে ঢাবির চার ছাত্র গ্রেপ্তার

নিষিদ্ধঘোষিত সংগঠন হিযবুত তাহ্‌রীরের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চার শিক্ষার্থীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত রোববার রাজধানীর পুরান ঢাকার বংশাল ও আজিমপুর এলাকা থেকে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়। গতকাল সোমবার চার শিক্ষার্থীর দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

গ্রেপ্তার শিক্ষার্থীরা হলেন রেজওয়ান পারভেজ, মেহেদী হাসান বিজয়, নূরে আলম মো. সিহাব উদ্দিন ও আবু আল জিন্নাতুল। তাঁদের মধ্যে রেজওয়ান ও মেহেদী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেম বিভাগের ছাত্র, নূরে আলম বিবিএ এবং জিন্নাতুল ইংরেজি বিভাগের ছাত্র। তাঁদের কাছ থেকে হিযবুত তাহ্‌রীরের সাংগঠনিক নথি, প্রচারপত্র, পোস্টার ও দুটি সাময়িক পত্রিকা জব্দ করা হয়েছে বলে পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের উপকমিশনার মিশুক চাকমা গতকাল প্রথম আলোকে বলেন, বংশালের একটি ফ্ল্যাটে অভিযান চালিয়ে রেজওয়ানকে আটক করা হয়। পরে তাঁর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে আজিমপুর এলাকা থেকে বাকিদের ধরা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সবাই হিযবুত তাহ্‌রীর সক্রিয় সদস্য বলে স্বীকার করেছেন।

এই চার শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে মামলা দেওয়া হয়েছে। ওই মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গতকাল তাঁদের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

আরও পড়ুনঃ উন্নয়ন ব্যবস্থাপনা: ব্র্যাক দৃষ্টিকোণ থেকে

গত শনিবার দিবাগত রাতে আজিমপুরের একটি ফ্ল্যাট থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ছাত্র আশিকুর রহমানকেও তুলে নেওয়া হয়েছিল।

পরদিন রোববার তাঁর সন্ধান দাবিতে ক্যাম্পাসে সমাবেশ করেছিলেন বিভাগের শিক্ষক–শিক্ষার্থীরা। ওই সন্ধ্যায় তাঁকে ‘খুব ভালো ছেলে’ উল্লেখ করে অভিভাবকের হাতে তুলে দিয়েছিলেন গোয়েন্দা পুলিশের কর্মকর্তারা।

সিটিটিসি কর্মকর্তারা বলেন, হিযবুত তাহ্‌রীরের সদস্যরা দেশে অরাজকতা তৈরির লক্ষ্যে নতুন করে তৎপর হয়েছেন। ১৮ মার্চ তাঁরা অনলাইনে একটি সম্মেলন করেন। ওই সম্মেলন সফল করতে একটি গোপন আস্তানায় বৈঠক করেছিলেন তাঁরা।

তথ্য সূত্রঃ প্রথম আলো

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published.